সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ০২:৫৩ পূর্বাহ্ন

সুবিধা বঞ্চিতদের মাঝে স্যানিটাইজার ও মাস্ক বিতরণ করছেন যুগান্তরের ইকবাল হাসান ফরিদ

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১০ এপ্রিল, ২০২০
  • ৩১০ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিনিধি: সুবিধা বঞ্চিত মানুষের মাঝে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্ক বিতরণ করে আসছেন যুগান্তরের ক্রাইম রিপোর্টার ইকবাল হাসান ফরিদ। করোনা ভাইরাসের সংক্রমন থেকে সুরক্ষার লক্ষ্যে গত কয়েকদিন ধরে হতদরিদ্র মানুষের মাঝে সোস্যাল ক্রাইম প্রিভেনশন নেটওয়ার্ক- এসসিপিএন এর ব্যানারে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্ক বিতরণ করছেন তিনি। বৃহস্পতিবার(৯ এপ্রিল) মিরপুরের বড়বাগ এলাকায় তিনি অর্ধশতাধিক হিজড়ার হাতে তুলে দেন হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্ক। তারা স্বাস্থ্য সুরক্ষার এ সামগ্রী পেয়ে আনন্দিত হন। ওই এলাকার হিজড়া গুরু রাখি হিজড়া এসময় বলেন, আমরা সরকার ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে যথেষ্ট ত্রাণ পেয়েছি। আমরা সরকারের হোম কােয়ারেন্টিন ও সোস্যাল ডিস্টেইন্স অক্ষরে অক্ষরে পালন করছি। আমাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার ছিল না। ফার্মেসীতে খুজেও স্যানিটাইজার পাইনি। সাংবাদিক ইকবাল হাসান ফরিদের উদ্যোগে তা পুর্ণ হলো। তিনি বলেন, আমি প্রত্যেক মানুষকে আহ্বান জানাবো সরকারের নির্দেশনা মেনে ঘরে থাকুন।
ইকবাল হাসান ফরিদ প্রথম সেবাকে বলেন, হিজড়াদের কথা শুনে আমি রীতিমতো বিস্মিত হই। আমাদের সমাজের মুলধারার মানুষগুলোর কেউ কেউ যে হিজড়াদের দেখলে নাক সিটকায়, সেই হিজড়ারা রাস্তায় না নেমে সরকারের নির্দেশনাগুলো পালন করে যাচ্ছে। আর মুলধারার মানুষগুলোকে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী শত চেষ্টা করেও সোস্যাল ডিস্টেইন্স মানাতে পারছে না! অামার মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরণ অব্যাহত থাকবে। সোস্যাল ক্রাইম প্রিভেনশন নেটওয়ার্ক-এসসিপিএন সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে ইকবাল হাসান ফরিদ বলেন, সামাজিক অপরাধ প্রতিরোধে সাধারণ মানুষকে সচেতন করার লক্ষ্যে “সোস্যাল ক্রাইম প্রিভেনশন নেটওয়ার্ক-এসসিপিএন” আমার একটি অনলাইন উদ্যোগ। বিশ্বজুড়ে যখন করোনার মহামারি, বাদ যাচ্ছে না বাংলাদেশও। তাই বিবেক বললো এখন বসে থাকার সময় নয়, নেমে পড়ো মাঠে। তাই ১০০ এম এল এর ৫০০ বোতল হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও ৫০০ মাস্ক বিনামুল্যে বিতরণে নেমে পড়লাম মাঠে। তিনি বলেন, দুঃস্থ অসহায় মানুষের হাতে কোন কিছু একটা তোলে দেয়া সত্যিই আনন্দের। আমার উদ্যোগ অব্যাহত রয়েছে। এছাড়া গত ৮ এপ্রিল ঘোষণা করেছি ১০ টাকার ফান্ড। এ তহবিলের টাকা দিয়ে খাবার সামগ্রী পৌছে দেব অসহায় নিম্নমধ্যবিত্তের ঘরে। অর্থাৎ যারা সামাজিক কারণে লজ্জ্বায় রাস্তায় দাড়িয়ে কিংবা প্রকাশ্যে ত্রাণ গ্রহণ করতে পারেন না। ১০ টাকার ফান্ডে অনেকেই সহযোগিতার হাত বাড়াচ্ছেন, আশা করছি সকলের সহযোগিতায় এ উদ্যোগটিও বাস্তবায়ন করতে পারবো। কেউ যদি ১০ টাকার ফান্ডে সহযোগিতা পাঠাতে চান তবে ০১৯১৫ ০২৭৬৯৯(বিকাশ পারসোনাল) এই নাম্বারে পাঠাতে পারেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2019 Prothomsheba
Theme Developed BY ThemesBazar.Com