বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৭:২০ পূর্বাহ্ন

খোয়াই নদী দখল করে বালু উত্তোলণ ॥ হুমকীতে ইজারাদার

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৭ এপ্রিল, ২০২০
  • ২২২ বার পঠিত

এম এইচ খান ॥ হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল উপজেলার মিরপুর ইউনিয়ন ও চুনারুঘাটের সদর ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী এলাকায় অবস্থিত পুরাতন খোয়াই নদী (মরা নদী) স্থানীয় প্রভাবশালীদের দখলে। সরকার কর্তৃক ইজারা নিয়েও হুমকীর মুখে ইজারাদার । নদীর কিছু অংশ দখল করে গড়ে তুলেছেন বাসাবাড়ি ও দোকানপাট। ফদ্রখলা মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো: রুকন মিয়া জানান, স্থানীয় তহশিলদার ও সার্ভয়ারকে কে ম্যানেজ করে স্থানীয় গোলগাও গ্রামের মৃত সুন্দর আলীর ছেলে মোবারক ও ফজল মিয়া , মৃত সুরুজ মিয়ার ছেলে মাসুক ও বাবুল মিয়া, মাসুক মিয়ার ছেলে লিটন মিয়াসহ ৫জন ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করছে। এছাড়াও সবুজ, কাজল, বাবুল, সেলিম, জুয়েল, মকছুদ, সিরাজসহ অর্ধশতাধিক লোক লাঠিসোঁটা ও দা নিয়ে মৎস্যজীবী সমিতির সদস্যদের তাড়িয়ে দেন এবং অবৈধভাবে দখল করে রেখেছেন তার লিজকৃত জলমহাল । তাঁদের হুমকির কারণে ইজারাদারেরা তাদের লিজকৃত জলমহালে যেতে পারছেননা। রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর ইয়াছিন আরাফাত জানান , মরা খোয়াইনদী ফদ্রখলা মৎস্যজীবী সমবায় সমিতিকে জলমহালের দখলনামা বুঝিয়ে দেয়ার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও চুনারুঘাট থানার অফিসার ইনচার্জকে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। উক্ত নির্দেশ প্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ফদ্রখলা মৎস্যজীবী সমবায় সমিতিকে জলমহালের দখলনামা বুঝিয়ে লাল নিশানা দিয়ে সীমানা নির্ধারণ করে দেন। কিন্তু পরবর্তীতে উল্লেখিত দখলবাজরা সেখানের লাল নিশানা ভেঙ্গে দিয়ে ফদ্রখলা মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির সদস্যদের হত্যার হুমকী দিয়ে দখল নিশানা থেকে উচ্ছেদ করে দেয়। সমিতির লোকজন আরও জানান আমরা উক্ত জলমহালটি নিয়ম অনুযায়ী ৬ বছরের জন্য লিজ নেয়া সত্বেও অদ্যবধি পর্যন্ত উল্লেখিত জলমহালে মাছ চাষ করতে পারছিনা। ইদানিং দখলবাজরা নদী দখল পুর্বক বালু উত্তোলণ করে নদী ভরাটে লিপ্ত রয়েছে। সমিতির সদস্যদের ও স্থানীয় দখলবাজদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন সময় তাদের মধ্যে সংঘর্ষ ঘটতে পারে। এ ব্যাপারে প্রশাসনের কাছে মৎস্যজীবির সদস্যরা ইজারাকৃত জলমহালটি দখলবাজদের কবল হতে উদ্ধার করে আইনগত সহযোগীতা কামনা করছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2019 Prothomsheba
Theme Developed BY ThemesBazar.Com