সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ০৪:৫২ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
ঢাকা সিলেট মহাসড়কের ঝুঁকিপূর্ণ সেতু দিয়ে চলছে ভারী যানবাহন দেশ স্বাধীন হলেও গোলগাঁও বাসী এখনও পরাধীন সাতছড়ি ত্রিপুরা পল্লীর বাসিন্দারা আতঙ্কে \ পাহাড়ী ঢলে ধ্বসে পড়ছে টিলা বাহুবলে পোল্ট্রি ব্যবসায়ীকে হত্যার অভিযোগ মাধবপুরে বাস চাপায় শিশুর মৃত্যু চুনারুঘাটে ৬ বছরের ব্যবধানে দুই ভাইকে হত্যা ॥ গ্রেপ্তার ৩ ঈদ উল আযহা উপলক্ষে পৌর এলাকার ইমাম-মুয়াজ্জিনদের সম্মানী ভাতা প্রদান বানিয়াচং হাসপাতালে অনিয়ম দুর্নীতির প্রতিবাদে মানববন্ধন চুনারুঘাটে চেয়ারম্যান পদে সৈয়দ লিয়াকত হাসানের চমক ॥ কাইয়ূম ও খাইরুন ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত সিলেট ওসমানী হাসপাতালে পানি ঢুকে চরম দুর্ভোগ

অভিন্ন মানদণ্ডের আলোকে জেলার শ্রেষ্ঠ হলেন ইন্সপেক্টর চম্পক দাম সহ চুনারুঘাট থানার ৩পুলিশ সদস্য

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৬ জুন, ২০২১
  • ২১৯ বার পঠিত

নুর উদ্দিন সুমন :জেলা পুলিশের ‘মাসিক অপরাধ ও আইন-শৃঙ্খলা পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার (৬ জুন) দুপুরে জেলা পুলিশ লাইনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় জেলার সকল থানায় কর্মরত সকল স্তরের পুলিশ সদস্যদের মধ্যে কর্মস্পৃহা ও কর্মচাঞ্চল্য বাড়ানোর লক্ষ্যে ২০২১ সালের এপ্রিল মাসে জেলার বিভিন্ন স্তরের পুলিশ সদস্যদের কৃতিত্বপূর্ণ কর্মকাণ্ডের জন্য শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তা হিসেবে নির্বাচন করে পুরস্কার দেওয়া হয়। পুলিশ হেডকোয়ার্টার প্রণীত অভিন্ন মানদণ্ডের আলোকে ভালো কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ জেলার শ্রেষ্ঠ ইন্সপেক্টর(তদন্ত) নির্বাচিত হলেন, চুনারুঘাট থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) চম্পক দাম, ও একই থানার শ্রেষ্ঠ এসআই ক্যাটাগরিতে ভূপেন্দ্র চন্দ্র বর্মণ এবং শ্রেষ্ঠ এএসআই ক্যাটাগরিতে মাহমুদ হাসান জেলার শ্রেষ্ঠ নির্বাচিত করা হয়। একই সাথে ৩ সদস্যকে সম্মাননা প্রদান করা হয়। এদিকে মাধবপুর থানার ওসি মো: আব্দুর রাজ্জাকে জেলার শ্রেষ্ঠ ওসি নির্বাচিত করা হয়। নির্বাচিত পুলিশ সদস্যদের হাতে সম্মাননা তুলে দেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা । এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শৈলেন চাকমা, মাধবপুর সার্কেলের সিনিয়র এএসপি মহসিন আল মুরাদ সহ জেলা পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের কর্মকর্তারা । প্রসঙ্গ : ইন্সপেক্টর (তদন্ত) চম্পক দাম গত ৪ ডিসেম্বর ২০১৯ সালে চুনারুঘাট থানায় যোগদান করেন। যোগাদনের পর থেকে একাধিক ক্লুলেস খুন মামলার আসামি, বড় বড় দাগী চোর, ডাকাত ও মাদক মামলার আসামি গ্রেফতার ও মামলার রহস্য উদঘাটন সহ সামাজিক কর্মকাণ্ডসহ সার্বিক বিষয়ে বিগত দিনে অবদান রেখেছেন তিনি। এছাড়াও করোনাকালীণ সময়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অর্পিত দায়িত্ব পালন করেছেন। ইন্সপেক্টর (তদন্ত) চম্পক দাম জানান, সব সময় কাজের স্বীকৃতি পেতে ভালো লাগে। এ পুরস্কার আমার ভবিষ্যতে ভালো কাজ করতে উদ্বুদ্ধ করবে। হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা বলেন, আমার জেলায় কর্মরত পুলিশ সদস্যদের ভালো কাজে উদ্বুদ্ধ করার জন্য এ সম্মাননার ব্যবস্থা করা হয়েছে। যাতে করে সবার মাঝে কাজ করার আগ্রহ বাড়ে। ভালো কাজের প্রতিযোগিতা থাকে তাদের ভিতরে। এজন্য আমার এ চেষ্টা।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2019 Prothomsheba
Theme Developed BY ThemesBazar.Com