সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০২:২৩ অপরাহ্ন

বানিয়াচঙ্গে নিহত ইউপি সদস্য ময়না মিয়ার দাফন সম্পন্ন’জানাযার নামাজে হাজারো মুসল্লীর ঢল

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৪ মার্চ, ২০১৯
  • ৩৯৮ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিনিধি: বানিয়াচংয়ে দুর্বৃত্তদের হাতে নিহত হওয়া বানিয়াচং উপজেলা সদরের ৪নং দক্ষিণ-পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদের ৩নং ওয়ার্ডের জনপ্রিয় ইউপি সদস্য ময়না মিয়ার দাফন সম্পন্ন হয়েছে। গতকাল শনিবার (২৩ মার্চ) বিকাল সাড়ে ৫টায় স্থানীয় এল আর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এ জানাযার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। জানাযার নামাজে জনপ্রতিনিধি, বানিয়াচং থানা পুলিশ, সাংবাদিক, আইনজীবি, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী, ব্যবসায়ী, শিক্ষক ও আলেম ওলামা সহ সর্বস্তরের লোকজন অংশগ্রহন করেন। নামাজ শেষে নিহত ময়না মিয়াকে তার পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। নামাজের পূর্বে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন, বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ডা: সাখাওয়াত হাসান জীবন, সাবেক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন খান, সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দাল হোসেন খান, বানিয়াচং থানার ওসি রাশেদ মোবারক, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রেখাছ মিয়া, মাওলানা হাবিবুর রহমান, ছান্দ সর্দার তোতা মিয়া চৌধুরী, মাওলানা আব্দুল জলিল ইউছুফি ও নিহতের বড় ছেলে প্রবাসী বাবলু মিয়া।
বক্তারা এই হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত প্রকৃত আসামিদের দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে সর্বোচ্চ সাজা প্রদানের জন্য প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানান। কেনো নিরপরাধ ব্যক্তিতে যেন এই মামলায় না জড়ানো হয় সেদিকেও নজর দেয়ার জন্য অনুরোধ করেন তারা। ওসি রাশেদ মোবারক তার বক্তব্যে বলেন, যত দ্রুত সম্ভব এই হত্যার মোটিভ উদ্ধার করা হবে। পাশাপাশি হত্যার সাথে জড়িত থাকতে পারে এমন কারো নাম জানা থাকলে স্থানীয় পুলিশকে সহযোগিতা করার জন্যও বলেন তিনি। তিনি বলেন ইতিমধ্যে পুলিশ ও ডিবির একাধিক টীম এ হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটনে মাঠে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (২২ মার্চ) রাত সাড়ে ৮টায় দিকে বানিয়াচং উপজেলা সদরের ৪নং দক্ষিণ-পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদের ৩নং ওয়ার্ডের ৪ বারের নির্বাচিত মেম্বার ময়না মিয়া (৬৫) কে কুপিয়ে হত্যা করে দৃর্বৃত্তরা। দক্ষিণ যাত্রাপাশার বড়বাড়ি সংলগ্ন নিহতের বাড়ির রাস্তার পাশে এ ঘটনা ঘটে। পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, মেম্বার ময়না মিয়া প্রতিদিনের ন্যায় বাজার থেকে কাজ সেরে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে উল্লিখিত স্থানে পৌছা মাত্রই আগ থেকে উৎ পেতে থাকা একদল দুর্বৃত্ত তাঁর গতিরোধ করে তাকে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে জখম করে পার্শ্ববর্তী একটি ডোবার কচুরিপানার মধ্যে ফেলে রেখে দেয়। পরে পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে। রাতেই ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে মরদেহ প্রেরণ করা হয়। তবে কি কারণে কে বা কারা ময়না মিয়াকে হত্যা করেছে তা এখনো জানা যায়নি। পুলিশ জানিয়ে হত্যাকারীদের ধরতে সন্দেহভাজন বিভিন্ন জায়গায় অভিযান অব্যাহত আছে। খুব শীঘ্রই এই হত্যাকান্ডের রহস্য উদ্ধার করা হবে বলে জানিয়েছেন বানিয়াচং থানার ওসি রাশেদ মোবারক। তিনি আরো জানান এখন পর্যন্ত কোনো মামলা দায়ের করা হয়নি।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2019 Prothomsheba
Theme Developed BY ThemesBazar.Com