রবিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৯:১৭ অপরাহ্ন

হবিগঞ্জে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত টানা বর্ষনের ফলে ভয়াবহ জলাবদ্ধতা সৃষ্টি ॥ জনজীবন বিপর্যস্থ

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৮ অক্টোবর, ২০২৩
  • ২১ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ৩ দিনের টানা বৃষ্টিতে হবিগঞ্জ শহর পানিতে তলিয়ে গেছে। স্মরণকালের ভয়াবহ জলাবদ্ধতা দেখল হবিগঞ্জ শহরবাসী। টানা ১৬ ঘন্টার ভারী বর্ষণে পানিবন্দি হওয়ার পাশাপাশি বন্ধ থেকেছে বিদ্যুৎ সরবরাহ এবং মোবাইল নেটওয়ার্কসহ বিভিন্ন জরুরী সেবা। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে গতকাল রাত ৯টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকে বৃষ্টিপাত। একবারের জন্যও থামেনি বৃষ্টি। অন্তত ১০ ঘন্টা এর মধ্যে বৃষ্টিপাত হয়। প্রায় ১৪ ঘন্টার বর্ষনে শহরের প্রধান সড়ক সহ আশেপাশের গুরুত্বপূর্ণ সরকারী দপ্তর তলিয়ে যায় পানির নিচে। উল্লেখযোগ্য ভাবে পুলিশ সুপারের কার্যালয়, আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস, পানি উন্নয়ন বোর্ডের সামনের সড়ক, সার্কিট হাউজ রোড, পুলিশ সুপারের বাস ভবন, সদর মডেল থানা মোড়, জেলা প্রশাসকের বাস ভবন, বেবিস্ট্যান্ড মোড়, মোহনপুর সিএনজি স্ট্যান্ড, গণপূর্ত কোয়ার্টার সহ বিভিন্ন দোকানপাটে ব্যাপক জলাবদ্ধতা দেখা দেয়। এছাড়াও শহরের চৌধুরীবাজার, বি-জামান খান রোড, আহসানিয়া মিশন রোড, চিড়াকান্দি, শংকরের মুখ, পুরান মুন্সেফি, শ্যামলি, গোসাইপুর, ইনাতাবাদ, অনন্তপুর, শায়েস্তানগর সহ বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। প্রতিটি এলাকার শত শত বাসা বাড়ীতে পানি প্রবেশ করেছে। ফ্রিজ পানির মটরসহ অন্যান্য আসবাবপত্র পানিতে তলিয়ে গেছে। ঘরবন্দী হয়ে পড়েছে হাজার হাজার পরিবার। এসব এলাকায় কোথাও হাঁটু পরিমাণ আবার কোথাও কোমড় পরিমাণ পানি দেখা গেছে। শহরের এমন কোন এলাকা নেই যেখানে গত ১৬ ঘন্টার বৃষ্টিপাতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়নি।অন্যদিকে শহরের প্রধান সড়কের বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বৃষ্টির পানি প্রবেশ করে দোকানের জিনিস পত্র ভিজে নষ্ট হয়ে গেছে। শহরের বিভিন্ন এলাকায় ফিশারী পানিতে তলিয়ে গিয়ে কোটি টাকার মাছ ভেসে গেছে। বিভিন্ন এলাকায় শত শত মানুষকে পানিতে ভেসে আসা মাছ ধরতে দেখা গেছে।
শহরবাসীর দাবী, সর্বকালের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাতে স্মরণকালের সবচেয়ে ভয়াবহ জলাবদ্ধতা শহরজুড়ে। প্রায় ১৬ ঘন্টা বিদ্যুৎ না থাকার ফলে শহরবাসী মাঝে চরম দুর্ভোগ দেখা গেছে। এছাড়াও বন্ধ ছিল সবকটি মোবাইল নেটওয়ার্ক ও ইন্টারনেট সেবা।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2019 Prothomsheba
Theme Developed BY ThemesBazar.Com