শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৭:২২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
চুনারুঘাটে ৬ বছরের ব্যবধানে দুই ভাইকে হত্যা ॥ গ্রেপ্তার ৩ ঈদ উল আযহা উপলক্ষে পৌর এলাকার ইমাম-মুয়াজ্জিনদের সম্মানী ভাতা প্রদান বানিয়াচং হাসপাতালে অনিয়ম দুর্নীতির প্রতিবাদে মানববন্ধন চুনারুঘাটে চেয়ারম্যান পদে সৈয়দ লিয়াকত হাসানের চমক ॥ কাইয়ূম ও খাইরুন ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত সিলেট ওসমানী হাসপাতালে পানি ঢুকে চরম দুর্ভোগ মিরপুরে এনা বাসের চাপায় শিশু নিহত ॥ সড়ক অবরোধ শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলায় চেয়ারম্যান ইকবাল ॥ ভাইস চেয়ারম্যান আফজল ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ডলি নির্বাচিত বাহুবলে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে শিশু নিহত আগামীকাল ৩ উপজেলায় ভোট গ্রহণ ॥ প্রস্তুতি সম্পন্ন ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন এমপির বিরুদ্ধে আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগ

প্রসূতির পেটে গজ রেখে সেলাই, ভারতে গিয়ে আবার অপারেশন

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৫ আগস্ট, ২০২৩
  • ৫০ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টারঃ হবিগঞ্জে একটি বেসরকারি হাসপাতালে সিজারিয়ান অপারেশনের সময় প্রসূতির পেটে গজ রেখেই সেলাই করার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার (১২ আগস্ট) ভারতের বেঙ্গালুরুতে একটি হাসপাতালে অপারেশনের মাধ্যমে ভুক্তভোগী পেট থেকে গজ অপসারণ করা হয়। ভুক্তভোগী প্রসূতি স্মৃতি সূত্রধর সদর উপজেলার তেঘরিয়া ইউনিয়নের রামপুর গ্রামের শ্রমিক স্বপন সূত্রধরের স্ত্রী।স্মৃতি সূত্রধরের স্বজনদের অভিযোগ, আট মাস আগে শহরের সূর্যমূখী জেনারেল হাসপাতালে আরশাদ আলী নামের একজন চিকিৎসক প্রসূতি স্মৃতি সূত্রধরের সিজার করেন। এরপর থেকে তিনি পেটে ব্যথা অনুভব করতে থাকেন। পরে আবারও তিনি হাসপাতালে গেলে আলট্রাসনোগ্রাম করে জানানো হয়, তার পেটে টিউমার হয়েছে। তাই তাকে অপারেশন করতে হবে। কিন্তু তাদের বিষয়টি নিয়ে সন্দেহ হলে সিলেটে আলট্রাসনোগ্রাম করানো হয়। এতে তার পেটে বাড়তি কিছু থাকার বিষয়টি ধরা পড়ে। পরে শনিবার ভারতের বেঙ্গালুরুতে মজুমদার শাহ হাসপাতালে গিয়ে তিনি জানতে পারেন, তার পেটে গজ রয়েছে। সেখানে অপারেশন করে দুটি গজ বের করা হয়।স্মৃতি সূত্রধরের দেবর নয়ন সূত্রধর বলেন, ‘ভারতে চিকিৎসায় মোট ৫ লাখ ৬৬ হাজার রুপি (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৭ লাখ ৪৮ হাজার টাকা) খরচ হয়েছে। আমার ভাই একজন দিনমজুর ওয়ার্কশপ শ্রমিক। এখন ভিটেমাটি বিক্রি করা ছাড়া আমাদের আর কোনো উপায় নেই। অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে চিকিৎসক আরশাদ আলী বলেন, ‘তৃতীয় সিজার হওয়ার কারণে স্মৃতি সূত্রধরের অপারেশনটি জটিল ছিল। সিজারের পর তার সমস্যার বিষয়টি জানার পর আমরা তার চিকিৎসা করতে চেয়েছি। কিন্তু তিনি আমাদের সঙ্গে আর যোগাযোগ করেননি। এ বিষয়ে হবিগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. নুরুল হক বলেন, বিষয়টি শুনেছি। তবে কোনো অভিযোগ পাইনি। সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2019 Prothomsheba
Theme Developed BY ThemesBazar.Com