সোমবার, ১১ অক্টোবর ২০২১, ০৮:০৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
চুনারুঘাটে সাতছড়ি বন থেকে চুরি হওয়া ১৩ টুকরো সেগুন গাছ উদ্ধার ২শ পিস ইয়বাসহ মাদককারীকে হাতেনাতে ধরে দিলেন সিএনজি চালক নজির সর্বোচ্চ মাদক উদ্ধারে জেলার শ্রেষ্ঠ হলেন চুনারুঘাটের ওসি মো:আলী আশরাফ বাহুবলবাসীর হৃদয়ে সর্বদা চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে বিদায়ী ইউএনও স্নিগ্ধা তালুকদার। চুনারুঘাটে ছাত্রলীগনেতা সায়েম তালুকদারের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালিত ঐতিহাসিক দরবার শরীফ মুড়ারবন্দের রাস্তার ভিত্তি প্রস্তরের উদ্বোধন চুনারুঘাটে আওয়ামীলীগের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালন চুনারুঘাটে ৭কেজি গাঁজা সহ আটক ৩ চানপুর বাগানের বাবু শফিকুল ইসলামের মায়ের ইন্তেকাল টাস্কফোর্সের অভিযান: ৫৩ বস্তা ভারতীয় চাপাতা উদ্ধার

মাধবপুরে প্রেমিকার মায়ের মামলায় প্রেমিক গ্রেফতার

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৮ জুন, ২০২১
  • ৬৬ বার পঠিত

রিংকু দেবনাথ মাধবপুর: হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার রসুলপুর গ্রামে প্রেমিকা কে ঘরে না তুলে বিষপানে আত্বহত্যার প্ররোচনায় মামলায় প্রেমিক আব্দুল আহাদ কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে মাধবপুর থানার কাশিমনগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক উত্তম কুমার দাস এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ চৌমহনী ইউনিয়নের মদনপুর গ্রামে অভিযান চালিয়ে আব্দুল আহাদ কে গ্রেফতার করে। ধৃত আব্দুল আহাদ উপজেলার ধর্মঘর ইউনিয়নের রসুলপুর গ্রামের মৃত রফিক মিয়ার ছেলে। রসুলপুর গ্রামের আব্দুল আহাদ মিয়ার সঙ্গে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর উপজেলার সোনামুড়া গ্রামের সালমা বেগম (৩২) নামে প্রবাস ফেরত এক নারীর মোবাইল ফোনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে । গত ৮জুন সালমা বেগম রসুলপুর গ্রামের আব্দুল আহাদের বাড়িতে এসে তাকে ঘরে তুলে নিতে চাপ সৃষ্টি করে। আব্দুল আহাদ রাজি না হওয়ায় সালমা বেগম পুকুর পাড়ে বিষ পান করে। পরে আশংকাজন অবস্হায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে তার মৃত্যু হয়। সালমার মা জাহানারা বেগম জানান সালমা ওমানে থাকাকালীন মোবাইল ফোনে তাদের প্রেমের সম্পর্ক হয়, গত ৩ মাস আগে সালমা উমান থেকে দেশে আসে।পরে আব্দুল আহাদের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। স্বামীর দাবি নিয়ে সালমা আহাদের বাড়ি গেলে তাকে ঘরে না উঠিয়ে বিষ খাইয়ে দিয়ে হত্যা করা হয়। এব্যাপারে সালমার মা জাহারানা বেগম গত ১০জুন আব্দুল আহাদ কে প্রধান আসামি করে মাধবপুর থানায় একটি মামলা রুজু করেন। এর পর থেকে আব্দুল আহাদ আত্বগোপনে চলে যায়।মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরির্দশক উত্তম কুমার দাস তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার করে মামলার ৮দিনের মাথায় প্রধান আসামি আব্দুল আহাদ কে গ্রেফতার করেন। মাধবপুর থানার ওসি মুহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2019 Prothomsheba
Theme Developed BY ThemesBazar.Com