শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০১:৪৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
আল-আকসা সুন্নিয়া জামে মসজিদের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের উদ্বোধন করলেন প্রতিমন্ত্রী নবীগঞ্জে পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু। মিশুক চালক নাঈম হত্যা মামলায় ৪ জন আটক ॥ ৩ জনের স্বীকারোক্তি চুনারুঘাটে ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার হবিগঞ্জ থেকে মিশুক চালক নিখোঁজের ৭ দিন পর ॥ চুনারুঘাটের রঘুনন্দন পাহাড়ের নির্জন স্থানে নাঈম’র গলাকাটা লাশ উদ্ধার শায়েস্তাগঞ্জে চেতনা নাশক ঔষুধ স্প্রে পার্টির ৪ সদস্য আটক শায়েস্তাগঞ্জে দিনে দুপুরে চালককে ছুরিকাঘাত করে ছিনতাই ॥ আহত ২ শায়েস্তাগঞ্জে স্প্রে নিক্ষেপ করে আবারও দুই বাড়িতে চুরির চেষ্টা সাংবাদিক সুজনের পিতা কাজী আব্দুল হান্নান মাষ্টারের ৩য় মৃত্যু বার্ষিকী সুসজ্জিত গাড়িতে পুলিশ কনস্টেবলকে রাজকীয় বিদায় দিলেন চুনারুঘাটের ওসি

মাধবপুরের বাঘাসুরায় ঘুমন্ত দুই বোনের উপর দুর্র্বৃত্তদের এসিড নিক্ষপ  ঝলসে গেছে মুখমন্ডল

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৬ জানুয়ারী, ২০১৯
  • ৩৮১ বার পঠিত
রাজীব দেব রায় রাজু, মাধবপুর ॥মাধবপুরে গভীর রাতে ঘুমন্ত দুই বোনের উপর এসিড নিক্ষেপের ঘটনা ঘটেছে। নিজ বসতঘরে ঘুমন্ত অবস্থায় ওই দুই বোনের উপর জানালা দিয়ে এসিড ছুড়ে মারে অজ্ঞাত দূর্বৃত্ত। তাদেরকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ বার্ন ইউনিটে প্রেরণ করা হয়েছে। এসিড আক্রান্ত হাবিবা (১৮) ও আয়েশা (১০) উপজেলার বাঘাসুরা গ্রামের এখলাছ মিয়ার কন্যা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ।হাবিবা ও আয়েশার পারিবারিক সুত্র জানায়, হাবিবা আক্তারকে প্রায় ১০ মাস পূর্বে বিয়ে দেয়া হয় ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার সায়েক গ্রামের ছায়েদ আলীর পুত্র মুমিন মিয়ার সাথে। গত ১৫ দিন আগে পারিবারিক ভাবে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ (ডিভোর্স) হয়। বৃহস্পতিবার হাবিবা প্রতিদিনের ন্যায় রাতের খাবার শেষে তাদের কক্ষে ছোট চার বোনকে নিয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। রাত প্রায় ২টার দিকে কে বা কারা ঘরের জানালার গ্রিল ভেঙ্গে তাদের উপর এসিড নিক্ষেপ করে পালিয়ে যায়। দুর্বৃত্তের ছুড়া এসিডে হাবিবা আক্তার ও তার ছোট বোন আয়েশা আক্তারের শরীর ঝলসে যায়। আয়েশা স্থানীয় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির ছাত্রী। তাদের শোর-চিৎকারে পরিবারের লোকজন এগিয়ে এসে তাৎক্ষণিক দু-বোনকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ সাইফুর রহমান সোহাগ প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে প্রেরণ করেন। হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালের জরুরী বিভাগে কর্মরত ডাঃ সাইফুর রহমান জানান, দু-বোনই এসিডে আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে বড় বোন হাবিবা আক্তারের মুখের প্রায় ৭০ শতাংশ ঝলসে গেছে। তার অবস্থা আশংকাজনক। এছাড়াও ছোট বোন আয়েশার শরীরের বিভিন্ন স্থানে এসিড পড়েছে। মাধবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) চন্দন কুমার চক্রবর্তী জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। দুর্বৃত্তদের সনাক্ত করে দ্রুত আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2019 Prothomsheba
Theme Developed BY ThemesBazar.Com