সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ০৩:২১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
অগ্নিদগ্ধ শিশুকন্যা ঝর্ণার চিকিৎসার দায়িত্ব নিলো স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন নবজাগরণঃ বাহুবলের মিরপুর চৌমুহনী এলাকায় ফুটপাত ও রাস্তা দখল করে চলছে হকারদের ব্যবসা! এবার সিলেট রেঞ্জে শ্রেষ্ঠ হলেন ইন্সপেক্টর চম্পক দামসহ চুনারুঘাট থানার ৩ পুলিশ সদস্য আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় চতুর্থবারের মতো সম্মাননা পেলেন চুনারুঘাটের ওসি হবিগঞ্জে ডিবি পুলিশের অভিযানে দুই ছিনতাইকারী আটক সিএনজি উদ্ধার অভিন্ন মানদণ্ডের আলোকে জেলার শ্রেষ্ঠ হলেন ইন্সপেক্টর চম্পক দাম সহ চুনারুঘাট থানার ৩পুলিশ সদস্য শায়েস্তাগঞ্জ র‌্যাবের অভিযানে ২০ কেজি গাঁজা উদ্ধার আটক ২ চুনারুঘাটে ৫ কেজি গাঁজাসহ পিতাপুত্র আটক চুনারুঘাটে উপবৃত্তির নামে বিকাশ প্রতারণা ক্রমশ বেড়েই চলেছে বাহুবলে বজ্রপাতে এক কৃষকের মৃত্যু: নিহতর পরিবারকে উপজেলা প্রশাসনের আর্থিক সহায়তা

প্রকাশিত সংবাদের তৃষ্ণা আক্তারের প্রতিবাদ

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৮ মে, ২০২১
  • ৪৬ বার পঠিত

প্রকাশিত মানহানীকর অনলাইন সংবাদের বিরুদ্ধে তৃষ্ণা আক্তারের প্রতিবাদ ও ব্যাখ্যা :

আমি মোছাঃ তৃষ্ণা আক্তার, পেশায় একজন গৃহিণী এবং পাশাপাশি বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী ও সামাজিক উন্নয়নমূলক কাজের সাথে জড়িত। সামাজিক কাজের সুবাদে আমি বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে কাজ করছি। মানবতার কল্যাণে সামান্য কাজ করতে পারলেও আমি অন্তরে তৃপ্তি অনূভব করি। ‘বিডি ক্লিন’, ‘ রক্তের বন্ধনে চুনারুঘাট’, ‘আদর্শ সমাজকল্যাণ সংস্থা’ ‘নবজাগরণ সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী যুব সংগঠন’ সহ আমি বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংস্থায় একজন স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করি। ‘ব্লাড ফর লাইফ ইন বাংলাদেশ’ সংগঠনের বাহুবল উপজেলা শাখার অধিনেও আমি বিভিন্ন সময়ে মানবিক কার্যক্রম পরিচালনা করেছি। এমনকি করোনাকালেও আমি জীবনের ঝুঁকি নিয়ে স্বেচ্ছাসেবায় নিজেকে নিয়োজিত করেছি। করোনাকালে ‘ব্লাড ফর লাইফ ইন বাংলাদেশ’ এর সাথে আমি অনেক মানবিক কর্মকান্ড করেছি। ‘ব্লাড ফর লাইফ’ বাহুবল উপজেলা শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতির দায়িত্বও পালন করেছি আমি। কিন্তু বিগত কয়েকমাস ধরে দুয়েকটি বিষয়ে উক্ত সংগঠনের দুএকজন নেতৃবৃন্দের সাথে আমার মতানৈক্য দেখা দিলে আমি বিগত ফেব্রুয়ারী মাসে সংগঠনের ম্যাসেঞ্জার গ্রুপে পদত্যাগের দাবী জানাই। কিন্তু সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক বলেন সংগঠনে স্বেচ্ছায় পদত্যাগের কোনো নিয়ম নেই তাই আমার প্রস্তাবের ভিত্তিতে কিছুদিন পরে আমার নামে একটি বহিষ্কারাদেশ প্রদান করা হয়। আর এব্যপারে আমি একদমই বিচলিত ছিলাম না, কারণ আমি নিজেই চাইছিলাম না উক্ত সংগঠনের সাথে আর কাজ করতে। তারপর থেকে আমি উক্ত সংগঠনের সাথে আর কোনো যোগাযোগ রাখিনি। তবে আমি আমার মানবিক কার্যক্রম বন্ধ করি নি। আমি অন্যান্য সামাজিক সংগঠনের সাথে সামাজিক কাজ করে গেছি।
কিন্তু হটাৎ করেই আজকে সকালে একটি অযৌক্তিক অনলাইন নিউজ দেখে আমি একদম আশ্চর্যিত হয়ে যাই, আমি আতঙ্কিতও বটে। কারণ উক্ত অনলাইন নিউজে উদ্দেশ্য প্রনোদিত ভাবে আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করা হয়েছে। উপরোক্ত সংগঠনের অন্য আরেকজন সদস্যকে বহিষ্কার করেছিলো আমার আগে কি পরে সেটা আমি জানিনা, সেই বহিষ্কৃত সদস্যকে আমার সাথে জড়িয়ে ভিত্তিহীন অযৌক্তিকভাবে অনলাইন নিউজ উপস্থাপন করা হয়েছে। সংগঠন পরিত্যাগের প্রায় ৩/৪ মাস পরে এমন যা-তা সংবাদ প্রকাশের কারণ আমার কাছে বোধগম্য নয়।

আমি এব্যপারে ‘ব্লাড ফর লাইফ ইন বাংলাদেশ’ এর প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক সুবল মোদকের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন এসব বিষয়ে তিনি নিজেই কিছু জানেন না, এবং সংগঠনের কেউ এটার সাথে জড়িত না বলেও তিনি জানিয়েছেন।

এই ধরনের ভিত্তিহীন অযৌক্তিক সংবাদের কারণে আমি ও আমার পরিবার খুবই আতঙ্কিত। ব্যক্তিগত জীবনে আমি ২ ছেলে ও ১ মেয়ের জননী। আমার বড় মেয়ে নবম শ্রেণির ছাত্রী। আমার স্বামী একজন প্রবাসী। উক্ত বানোয়াট নিউজের জেরে আমার সাংসারিক জীবনে জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে এবং সামাজিক জীবনে সম্মানহানী ঘটেছে। তাই আমি বাধ্য হয়ে আজকে এই ভিত্তিহীন বানোয়াট ও অযৌক্তিক অনলাইন নিউজের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং আমি এর বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবো।
একজন অবলা নারীর প্রতি আপনারা কিভাবে এমন বিরুপ সংবাদ প্রচার করতে পারেন? আমি আমার পরিচিতজন সহ সকলের মানবিক সহযোগিতা কামনা করছি। যে বা যাহারা ইচ্ছাকৃতভাবে একটি অযৌক্তিক নিউজের সাথে অারেকটি ভিত্তিহীন বিষয় জড়িয়ে ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে আমাকে সমাজে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করছেন তাদের কাছে অনুরোধ দয়া করে আপনারা এইসব করে একটা মেয়ের জীবন নষ্ট করে দিবেন না। আমার পরিবার আছে, সংসার আছে আপনারা দয়া করে এই অযৌক্তিক সংবাদটি প্রত্যাহার করুন। অন্যাথায় আমি দেশের প্রচলিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবো। আর সামাজিক ও মানবিক কার্যক্রমের কারণেই যদি আমি আপনাদের চক্ষুশূল হয়ে থাকি তাহলে আমি আর এই মানবিক কার্যক্রমগুলো করবো না৷ আমি এতটুকু বুঝতে পারলাম, এই সমাজ ভালো মানুষের জন্য নয়, সমাজে ভালো কাজের মূলয়ায়ন করা হয় খারাপ দিয়ে। তাই, বাধ্য হয়েই হয়তো আমাকে এইসব মানবিক কার্যক্রম থেকে সরে আসতে হবে! তবে এতটুকু বিশ্বাস করি সমাজে এখনও অনক ভালো মানুষ আছেন। আমি তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি, এবং আমি আশা করি আপনারা মানবিক দৃষ্টিকোন থেকে একজন অসহায় নারীর পাশে দারাবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2019 Prothomsheba
Theme Developed BY ThemesBazar.Com