রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ১১:০৭ অপরাহ্ন

চুনারুঘাট চা-বাগানে বিক্ষোভ শ্রমিকদের হাসিয়ে মাতিয়ে আন্দোলন স্তব্ধ করে দেন নুসরাত ফাতিমা

নুর উদ্দিন সুমন, বার্তা সম্পাদক
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২ অক্টোবর, ২০১৯
  • ৩৫৫ বার পঠিত

নুর উদ্দিন সুমন ॥ হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার নালুয়া চা বাগানের ডেপুটি ব্যবস্থাপক ইকবাল হোসেনের অপসারণ দাবিতে আন্দোলনে করেছে চা শ্রমিকরা। কাজে যোগ না দিয়ে (২অক্টোবর) বুধবার সকাল থেকে ব্যবস্থাপকের বাংলোর সামনে বিক্ষোভ মিছল করতে থাকে বাগানটির সহশ্রাধিক শ্রমিক।

বিকেল ৩টা পর্যন্ত ধর্মঘট চলছিল। অভিযুক্ত ইকবাল হোসেনকে দ্রুত অপসারণ না করলে বৃহত্তর আন্দোলনের হুশিয়ারি দেয় চা শ্রমিকরা। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নির্যাতন ও দুর্নীতির অভিযোগসহ বিভিন্ন অনিয়মের কারণে নালুয়া বাগানের ডেপুটি ব্যবস্থাপকের সাথে সম্প্রতি শ্রমিকদের বিরোধ দেখা দেয়। বেশ কিছুদিন ধরেই ওই কর্মকর্তার অপসারণের দাবি জানিয়ে আসছিল তারা। বুধবার ইকবাল হোসেনকে বদলির দাবিতে বাগনটির ১ হাজার ৩২০ জন পুরুষ ও নারী শ্রমিক কাজে যোগ না দিয়ে বিক্ষোভ মিছলে নেমে ধর্মঘট ঘোষণা করে।

খবর পেয়ে চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) নুসরাত ফাতিমা ও চুনারুঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ নাজমুল হক এবং বাগান পঞ্চায়েত সভাপতি ভূপন্দ্র উড়াং ও সাধারণ সম্পাদক সমা কান্ত পালের মাধ্যমে বিষয়টির সমাধানের আশ্বাস দিলে ধর্মঘট তুলে নেয় এবং আন্দোলনরত চা- শ্রমিকদের নবাগত সহকারী কমিশনার (ভূমি) (ভারপ্রাপ্ত) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুসরাত ফাতিমা শ্রমিকদের হাসিয়ে মাতিয়ে আন্দোলন স্তব্ধ করে দেন পরে শ্রমিকরা শান্ত হয়ে ঘরে ফিরে যায়।বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সাড়া পড়ে।

 শ্রমিকদের  হাসিয়ে মাতিয়ে আন্দোলন স্তব্ধ করে দেন (ভারপ্রাপ্ত) উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) নুসরাত ফাতিমা 

 

নালুয়া চা বাগানের শ্রমিক নেতা ও আহম্মদাবাদ ইউনিয়নের মেম্বার নটবর রুদ্রপাল জানান, আমরা ৪ মাস পূর্বে ইকবাল সাহেবকে অপসারণের জন্য আল্টিমেটাম দিলেও কতৃপক্ষ শুধু সময় ক্ষেপন করছে। তাই আমরা আন্দোলনে ছিলাম। যদি সমাধান না হয় অমাদের এই আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।

চা শ্রমিক ইউনিয়নের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক নৃপেন পাল জানান, ডেপুটি ব্যবস্থাপক ইকবাল দীর্ঘদিন ধরে শ্রমিকদের ওপর নির্যাতন চালিয়ে আসছিলেন। এছাড়াও বাগানের ছায়াবৃক্ষ এবং চা পাতা চোরাইপথে বিক্রি করেন তিনি। এছাড়াও বাগানের নবনির্মিত ভবনের বিভিন্ন মালামাল বিক্রির মাধ্যমে কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন তিনি। বাগান কর্র্তৃপক্ষ আস্বস্থ করেছেন তাকে প্রত্যাহার করবে আর না করা হলে এই আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।

এ ব্যাপারে ডেপুটি ব্যবস্থাপক জহিরুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) নুসরাত ফাতিমা জানান, খবর পেয়ে আমরা চাবাগান কর্তৃপক্ষ ও শ্রমিকদের দাবী মেনে নেয়ার শর্তে তারা আন্দোলন ধর্মঘট তুলে নেয়। বিষয়টি দ্রুত সমাধানের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

চুনারুঘাট থানার ওসি শেখ নাজমুল হক জানান, বিরোধ সমাধানের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার শ্রমিকরা কাজে যোগদান করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2019 Prothomsheba
Theme Developed BY ThemesBazar.Com