রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ১০:১৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
ভাতিজার দায়ের কোপে চাচা চাচী গুরুতর আহত চাচা মৃত্যুশয্যায়। ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন চুনারুঘাটে পৌরসভার প্যানেল মেয়র মনোনীত সভা অনুষ্ঠিত চুনারুঘাটে মিরাশী ইউনিয়ন কৃষকদলের কমিটি গঠন সড়কে প্রাণ গেল ব্যারিস্টার সুমনের ফুফাত ভাই শিপনের রাস্তা নিয়ে লাইভ ব্যবস্থা আশ্বাস দিলেন হবিগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগ মাধবপুর প্রেসক্লাবের দপ্তর সম্পাদক রাজু’কে ফেইজবুকে হুমকির ঘটনায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করোনা সচেতনতায় আবারো মাঠে প্রশাসন-চুনারুঘাটে ইউএনওর বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ ১৯ লক্ষাধিক টাকা ব্যয়ে উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন করলেন পৌর মেয়র সাইফুল উন্নয়ন মেলায় নজর কেড়েছে উপজেলা শিক্ষা অফিসের স্টল

মানুষখেকো পিরানহা মাছ বিক্রি করায় বাহুবলে আড়তদারকে জড়িমানা ১ মন মাছ জব্দ

নুর উদ্দিন সুমন, বার্তা সম্পাদক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৫ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৩৫ বার পঠিত

নুর উদ্দিন সুমন :: জেলার বাহুবল উপজেলার পুটিজুরী ইউনিয়নের স্নানঘাট মাছ বাজারে অভিযান চালিয়ে নিষিদ্ধ পিরানহা রূপচাঁদা বলে বিক্রির অভিযোগে হারুন মিয়া (৪০) নামে এক আড়ৎদারকে ৫ হাজার টাকা জড়িমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। হারুন মিয়া দক্ষিণ স্নানঘাট এলাকার আসাদুল্লাহর পুত্র। এ সময় (৪০ কেজি) নিষিদ্ধ পিরানহা জব্দ করে ধ্বংস করা হয় । মঙ্গলবার দুপুরে বাহুবল উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট স্নিগ্ধা তালুকদারের নেতৃত্বে এ অভিযান চালানো হয়। অনুসন্ধানে জানা যায়, এক ঝাঁক পিরানহা মাছ নিমেষেই কঙ্কাল বানিয়ে ফেলতে পারে একজন মানুষকে। পৃথিবীর অন্যতম ভয়ংকর মানুষখেকো এ মাছ বহু দেশে উৎপাদন ও বিপণন নিষিদ্ধ। বাংলাদেশেও কয়েক বছর আগে নিষিদ্ধ করা হয় এ মাছ। কিন্তু দেশের বিভিন্ন স্থানে গোপনে চাষ করা হয় পিরানহা। রূপচাঁদা বলে বিক্রি করা হয় বেশি দামে। হবিগঞ্জসহ বাহুবলের বিভিন্ন বাজারে ঘুরে অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য। মাছ বিক্রেতারা জানান, এইটা পিরানহা মাছ আমরা রূপচাঁদা বলে বিক্রি করি। এটা রঙ দেওয়া মাছ জানি, তবে রঙের যে আইন আছে বা অবৈধ আমরা জানি না।
উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা জানান, এ মাছ যেমন মানুষের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ তেমনি পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর। এটা মানবদেহের চেয়ে পরিবেশের ক্ষতি বেশি করে। আমাদের যে লোকাল পরিবেশ আছে এটার জন্য খুবই ক্ষতিকর।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট স্নিগ্ধা তালুকদার এ তথ্য নিশ্চিত করেন জানান, এই পিরানহা মাছ কোনোভাবে চাষ করা যাবে না, বিক্রি করা যাবে না। এই পিরানহা মাছ বাজারে এবং হোটেলে বিক্রি করা হয়। পিরানহা মাছ রূপচাঁদা বলে বিক্রিয়ের অপরাধ আমরা পেয়েছি। এই অপরাধ থাকার কারণে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে জড়িমানা করা হয়েছে। পাশাপাশি এই মাছের ক্ষতিকর দিক সম্পর্কে বাজারের সকল মাছ ব্যবসায়ীকে অবগত করা হয়। ভ্রাম্যমান আদালতকে সহায়তা করেন উপজেলা মৎস্য অফিস।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2019 Prothomsheba
Theme Developed BY ThemesBazar.Com